প্রয়াত গীতিকবি বিশু শিকদারের সন্তানের দায়িত্ব নিলেন জেমস

0
17

বিনোদন প্রতিবেদক: ‘দুষ্টু ছেলের দল’, ‘তুফান’, ‘বিজলী’, ‘সেলাই দিদিমণি’সহ জেমসের গাওয়া এমন অনেক গানের গীতিকার বিশু শিকদার। জেমসের কণ্ঠে এসব গান শুনে শ্রোতারা উন্মাতাল হয়ে পড়েন। দেশের ব্যান্ড সংগীতের এই মহাতারকার গাওয়া এসব গানের গীতিকার বিশু শিকদার ২২ জানুয়ারি মারা যান। দীর্ঘদিনের সহযাত্রী এই গীতিকবির মৃত্যুতে শোকাহত জেমস। গত সোমবার বিশুর পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে তিনি ছুটে যান নড়াইলের লোহাগড়ায়। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সময় কাটান। একটা সময় জানান, তাঁর পরিবারের দেখভালের দায়িত্ব নেওয়ার কথাও।

বিশু শিকদারের জীবনের শেষ দিনগুলো নড়াইলের লোহাগড়ায় নিজ বাসায়ই কেটেছে। সেখান থেকে প্রায়ই জেমসের সঙ্গে কথা হতো বিশুর। জেমসের ম্যানেজার রুবাইয়াত ঠাকুর জানান, জেমস ভাই ও বিশুদার সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। কিছুদিন ধরে দূরে থাকলেও নিয়মিতই তাঁদের কথা হতো। সম্পর্কটা ছিল অনেক গভীর। তাঁর মৃত্যুতে জেমস ভাইও অনেক শোকাহত। মৃত্যুর দুই দিন পরই তিনি ছুটে যান লোহাগড়ায়। সেখানে বিশুদার স্ত্রী, সন্তান ও ভাইদের সঙ্গে দেখা করেন। চলে আসার সময় জেমস ভাই বলে এসেছেন, তাঁদের যেকোনো প্রয়োজনে পাশে থাকবেন। দায়িত্বও নিতে চান।

জানা যায়, বিশু শিকদারের সন্তানদের পড়াশোনাসহ অন্যান্য দায়িত্ব নেওয়ার আগ্রহ দেখিয়েছেন জেমস। ২১ জানুয়ারি সন্ধ্যায় জেমসের ব্যান্ড ‘নগরবাউল’ ফেসবুক পোস্টে জানায়, গীতিকার বিশু আর নেই। সঙ্গে ছিল একটা কবিতাও— ‘যদি এই শীতে আমি মরে যাই/মনে রেখো আগামী শীতে/নতুন করে জন্ম নেব/হয়তো ফুল হয়ে/কোনো পথের ধারে/হিমেল হাওয়া/চেতনার পাশ দিয়ে…।’ কবিতার কথায় ফুটে ওঠে জেমসের বেদনা।

বিশু শিকদার গীতিকবি হিসেবে মূলত জেমসের সঙ্গেই থাকতেন। তাঁরা দুজন মিলে বেশ কয়েকটি কালজয়ী গান উপহার দিয়েছেন। এই তালিকায় রয়েছে ‘দুষ্টু ছেলের দল’, ‘বিজলী’, ‘তুফান’, ‘সেলাই দিদিমণি’ ছাড়া ‘যদি এই শীতে’, ‘আমি তোমাদেরই লোক’, ‘অবশেষে জেনেছি’সহ আরও অনেক গান। দীর্ঘ এক যুগ নতুন কোনো গান প্রকাশ পায়নি জেমসের। গত বছরের ঈদে ‘আই লাভ ইউ’ শিরোনামের গান প্রকাশের মধ্য দিয়ে সেই বিরতি ভাঙেন তিনি। জেমসের গাওয়া এই গান যৌথভাবে লিখেছিলেন জেমস ও বিশু শিকদার। এই গীতিকবির লেখা নতুন আরেকটি গান খুব শিগগির মুক্তি পাবে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY